খাবার খেয়েই লাখপতি যুক্তরাষ্ট্রের ইউটিউবার

0
462
Spread the love

ভিডিওতে থরে থরে সাজানো খাবার গপাগপ খেয়ে চলেছেন এক নারী। ইউটিউবে নিজের খাবার খাওয়ার ভিডিও পোস্ট করেই লাখপতি বনে গেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাথেনি গ্যাসকিন। ইউটিউবে ৪৪ বছরের গ্যাসকিনের ‘বিলাভসলাইফ’ এবং ‘বিলাভস এএসএমআর ইটিং হার ওয়ে’ নামে দুইটি চ্যানেল আছে।

ওই দুইটি চ্যানেলে নানা ভিডিওতে গ্যাসকিনকে নানান পদের খাবার খেতে এবং দর্শকদের উদ্দেশ্যে সেগুলোর স্বাদ নিয়ে অনর্গল কথা বলতে দেখা যায়। তার খাবার খাওয়ার ভঙ্গিও কিছুটা বিচিত্রই বলা চলে। তার ভিডিওর আরেকটি উল্লেখযোগ্য দিক হলো খাবারের পরিমাণ। তিনি যে পরিমাণ খাবার সামনে নিয়ে বসেন এবং খেয়ে ফেলেন তা দিয়ে অনায়াসে পাঁচ-ছয়জন পেট পুরে খেতে পারেন।

বিবিসি জানায়, সিনসিনাটিতে নিজ বাড়িতেই একটি স্টুডিওতে খাবারের ভিডিওগুলো বানান গ্যাসকিন। তাকে সহযোগিতা করেন তার স্বামী। বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, শুধু ইউটিউব থেকেই তিনি বছরে ১০ লাখ মার্কিন ডলারের বেশি আয় করেন। ২০১৭ সালের ১৯ জুলাই গ্যাসকিন বিশালাকৃতির একটি সামুদ্রিক কাঁকড়া ভাজা খাওয়ার ভিডিও পোস্ট করেন। যেটি এখন পর্যন্ত তার সবচেয়ে দর্শকপ্রিয় ভিডিও। ১৯ লাখ ৭৫ হাজার ৪ জন তার ওই ভিডিওটি দেখেছেন।

নিজে প্রচুর পরিমাণে খাবার খেলেও তিনি মোটেও অস্বাস্থ্যকর খাওয়া কে উৎসাহ দেন না বলে দাবি গ্যাসকিনের। তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি এটা আসলে এক ধরনের বিনোদন এবং এর মাধ্যমে অনেক মানুষ উপকৃত হয়। ঠিক কিভাবে মানুষ উপকৃত হন এমন প্রশ্নে জবাবে গ্যাসকিন বলেন, এটা মানুষকে বিষন্নতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করে। এটা একাকিত্বে ভোগা মানুষদের সাহায্য করে। আমরা লোকজনের কাছ থেকে অসংখ্য মেইল পাই। যাদের অনেকে ক্যান্সার আক্রান্ত। তারা আমাকে কিভাবে ভিডিও দেখে খাবার গ্রহণের প্রতি আগ্রহ বোধ করছে সেটা জানান। ইউটিউবে ভিডিও বানানোই এখন গ্যাসকিন ও তার পরিবারের পারিবারিক ব্যবসায় পরিণত হয়েছে। তার স্বামীই তার ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করেন। তার ছেলেদের নিজ নিজ ইউটিউব চ্যানেল আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here