সাকিব-হাসানের তোপে ১২২ রানে শেষ উইন্ডিজ

সাকিব-হাসানের তোপে ১২২ রানে শেষ উইন্ডিজ
Spread the love

স্পোর্টস ডেস্কঃ সাকিব আল হাসান, অভিষিক্ত পেসার হাসান মাহমুদ, অভিজ্ঞ পেসার মোস্তাফিজুর রহমান কিংবা স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনেই বালির বাধের মত উড়ে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সব প্রতিরোধ। মাত্র ১২২ রানেই থেমে যেতে বাধ্য হলো তাদের। খেলেতে পেরেছে কেবল ৩২.২ ওভার। জিততে হলে মাত্র ১২৩ রান করলেই হবে টাইগারদের।

বুধবার (২০ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ক্যারিবীয়দের ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান টাইগার অধিনায়ক তামিম ইকবাল। ম্যাচটি শুরু হয়েছে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ১১টায়। সরাসরি সম্প্রচার করছে বিটিভি, নাগরিক টিভি ও টি স্পোর্টস চ্যানেল।

এ ম্যাচ দিয়ে দীর্ঘ বিরতির পর জাতীয় দলের জার্সিতে ফিরছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে তামিম ইকবালের অভিষেক হলো এই ম্যাচ দিয়েই। এ ম্যাচে অভিষেক হচ্ছে তরুণ পেসার হাসান মাহমুদের। বাংলাদেশের জার্সিতে ওয়ানডে অভিষেক হওয়া ১৩৪তম খেলোয়াড় তিনি।

দীর্ঘদিন পর মাঠে ফেরা সাকিব আল হাসান ও আজই প্রথমবারের মতো খেলতে নামা হাসান মাহমুদ- এ দুই বোলারের ভেলকিতেই মূল কুপোকাত ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং লাইনআপ। যদিও শুরুটা করেছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান, একটি উইকেট গেছে মেহেদি হাসান মিরাজের ঝুলিতেও।

অভিষিক্ত হাসান মাহমুদ মাত্র ২৮ রান খরচায় নিয়েছেন ৩ উইকেট। তার চেয়েও এগিয়ে সাকিব আল হাসান। শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক বোলিং করে ৭.২ ওভারে মাত্র ৮ রান খরচায় ৪ উইকেট নিয়েছেন সাবেক বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার। এছাড়া মোস্তাফিজুর রহমান নিয়েছেন ২ ও মেহেদি মিরাজের শিকার ১ উইকেট।

ক্যারিবীয়দের ব্যাটিংয়েও স্পষ্ট ছিল অনভিজ্ঞতার ছাপ। বলের লাইন-লেন্থ ঠিকঠাক না বুঝেই শট খেলেছেন একেকজন, হারিয়েছেন নিজেদের উইকেট। মাঝে ষষ্ঠ উইকেটে রভম্যান পাওয়েল ও কাইল মায়ারসের ৫৯ রানের জুটি ব্যতীত ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংসে ছিল না তেমন কিছুই। অভিষিক্ত মায়ারস করেন ৪০, রভম্যান পাওয়েলের ব্যাট থেকে আসে ২৮ রান।

এ দুজন ব্যতীত দুই অঙ্কে যেতে পেরেছেন আর মাত্র দুজন- অধিনায়ক জেসন মোহাম্মদ (১৭) ও আন্দ্রে ম্যাকার্থি (১২)। বাকি ছয়জনই ফিরেছেন এক অঙ্কে। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে সহ-অধিনায়ক সুনিল অ্যামব্রিসকে দিয়ে শুরু, যা শেষ হয়েছে ৩৩তম ওভারে আলঝারি জোসেফের মাধ্যমে। প্রথম উইকেট নেন মোস্তাফিজ আর শেষেরটি যায় সাকিব আল হাসানের ঝুলিতে।

জৈব সুরক্ষা বলয়ে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এই ম্যাচে থাকছে না দর্শকের উপস্থিতি। কিন্তু তা সত্ত্বেও ম্যাচটিকে ঘিরে টাইগারভক্তদের উন্মাদনায় ঘাটতি নেই।

সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ একই ভেন্যুতে গড়াবে ২২ জানুয়ারি। আর তৃতীয় ও শেষটি গড়াবে ২৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদে চৌধুরী স্টেডিয়ামে।

Leave a Reply