কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ কলাপাড়ায় পুত্রকে কোলে নেয়ার অপরাধে পিতাকে মারধর – এ সংক্রান্ত সংবাদ গনমাধ্যমে প্রকাশের পর আদালত স্বপ্রনোদিত হয়ে হয়ে মিসকেস দায়েরের পর আইনজীবীর ২ সহকারীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার ২৯অক্টোবর কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট শোভন শাহরিয়ার-এর আদালত এ গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করেন।

পুত্রকে কোলে নেয়ায় অপরাধে পিতাকে মারধর – এ সংক্রান্ত সংবাদটি গনমাধ্যমে প্রকাশিত হলে আদালতের নজরে এলে আদালত সংবাদটি যাচাই-বাছাইয়ের জন্য মো: শাহজাহান মিয়া, পুলিশ পরিদর্শক, জেলা গোয়েন্দা শাখা, পটুয়াখালীকে তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ প্রদান করেন। আদালতের নির্দেশের প্রেক্ষিতে ওসি ডিবি, পটুয়াখালী, আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। এতে আইনজীবী সহকারী মোখলেসুর রহমান ও মোখতার হোসেনের নাম অভিযোগে উঠে আসে।

উল্লেখ্য, গত ১০ সেপ্টেম্বর মামলার হাজিরা দিতে এসে কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের সম্মুখে নিজের ঔরসজাত ৩ বছরের শিশু সন্তান মো: সিফাত হোসেনকে কোলে নেয়ায় দুমোহরী কর্তৃক মারধর, নির্যাতনের শিকার হন কুয়াকাটার মুসুল্লীয়াবাদ গ্রামের রঙমিস্ত্রী শফিকুল ইসলাম বেপারী। দাম্পত্য কলহের জেরে স্ত্রী সাথী বেগম শফিকুল’র বিরুদ্ধে যৌতুক নিরোধ আইনে কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করে।

আদালতের গ্রেফতারী পরোয়ানায় পুলিশ শফিকুলকে গ্রেফতার করে কারাগারে প্রেরন করেন। এরপর আপোষের শর্তে শফিকুল’র জামিন মঞ্জুর করেন আদালত। স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, বর্তমানে বাদী ও আসামী শান্তিপূর্ন ভাবে সংসার করছেন।

Leave a Reply