শিশুটির ভাই ভাবী ট্রেনে তুলে অজানার উদ্দেশ্যে ছেড়ে দিয়েছিল

0
41
শিশুটির ভাই ভাবী ট্রেনে তুলে অজানার উদ্দেশ্যে ছেড়ে দিয়েছিল
Spread the love

রাণীনগরে সেই আলোচিত শিশুর দায়িত্ব নিলেন ইউপি চেয়ারম্যান। নওগাঁর রাণীনগরের মা-বাবা হারা, মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ১০ বছরের আলোচিত সেই শিশু রফিকুল ইসলামকে লালন-পালন করার জন্য দায়িত্বভার নিলেন গোনা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসনাত খাঁন হাসান। বুধবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে এবং পরিবারের লোকজনের উপস্থিতি ও সম্মতিতে গোনা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসনাত খাঁন হাসান শিশুটির দায়িত্বভার গ্রহন করেন। শিশু রফিকুল ইসলাম নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার গোনা ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামের মৃত বাদেশ মন্ডলের ছোট ছেলে। সে দ্বিতীয় শ্রেণীর শিক্ষার্থী। রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আল মামুন জানান, গোনা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসনাত খাঁন হাসান শিশুটিকে লালন-পালন করার জন্য ইচ্ছে পোষন করেন। পরে শিশু রফিকুলের পরিবারের লোকজনের উপস্থিতিতে ও সকলের সম্মতিতে রফিকুলকে লালন-পালন করার জন্য সাময়িকভাবে ইউপি চেয়ারম্যান হাসানকে দায়িত্বভার দেওয়া হয়েছে। শিশুটিকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগীতা করাসহ তার খোঁজ খবর নেওয়া হবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরো জানান, গত শনিবার রাতে রাজবাড়ির বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর রেলওয়ে স্টেশনে শিশু রফিকুলকে পাওয়া যায়। রোববার দুপুরে সেখানকার স্থানীয় সোনার বাংলা সমাজ কল্যাণ ও ক্রীড়া সংসদের আহ্বায়ক এসএম হেলাল খন্দকার শিশুটিকে বালিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে নিয়ে যান। পরে বালিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমাদের বিষয়টি অবগত করেন। তারপর বুধবার শিশু রফিকুলকে রাণীনগরে নিয়ে আসা হয়। রাণীনগর উপজেলার গোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হাসনাত খাঁন হাসান বলেন, শিশুটির মা-বাবা কেউ বেঁচে নেই। বড় ভাই ও ভাবির কাছে থাকতো। তাদের অভাবের সংসার বড় ভাইটিও শারীরিকভাবে অক্ষম। তাই শিশু রফিকুলকে লালন-পালন করার দায়িত্বভার আমি নিয়েছি। উল্লেখ্য, শিশু রফিকুলের ভাই ভাবী তাকে লালন পালন করতে না পেরে ট্রেনে তুলে অজানার উদ্দেশ্যে ছেড়ে দিয়েছিল।

রহিদুল ইসলাম রাইপ নওগাঁ প্রতিনিধি :

 

Leave a Reply