লিঙ্গান্তরিতদের জন্য নতুন নিয়ম করল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

13

ক্রিকেট খেলাকে সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার লক্ষ্যে যুগান্তকারী এক সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। বৃহস্পতিবার বোর্ড সভাশেষে নেয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী লিঙ্গান্তরিত ক্রিকেটাররাও এখন চাইলে নিজেদের পরিচয়েই খেলতে পারবে অন্যতম জনপ্রিয় এ খেলাটি।

সিএ’র নতুন নিয়মানুযায়ী যেকোনো মানুষ তথা ক্রিকেটার জন্মের সময় যাই হোক, তাদের পছন্দমতো লিঙ্গ পরিচয়ে ক্রিকেট খেলতে পারবেন। অর্থাৎ কেউ যদি লিঙ্গ পরিবর্তন করে নারী থেকে পুরুষ কিংবা পুরুষ থেকে নারী হয়ে থাকেন, তাহলে তারা নতুন লিঙ্গ পরিচয়েই ক্রিকেট খেলতে পারবেন।

তবে এধরনের ক্রিকেটারদের আগে নিজেদের যেকোনো একটি লিঙ্গ নির্ধারণ করতে হবে এবং তা জমা দিতে হবে বোর্ডের কাছে। একইসঙ্গে এটি নিশ্চিত করতে হবে যে লিঙ্গান্তরিত হওয়ার সিদ্ধান্ত তাদের নিজেদের এবং এটিতে তারা স্থির থাকবে। এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে সহায়তা করতে হবে।

নতুন এ নিয়ম ঘোষণা করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী কেভিন রবার্টস বলেন, ‘বর্তমান সমইয়ে লিঙ্গ বৈষম্যের কোনো স্থান নেই। তারা (লিঙ্গান্তরিত) নিজেরা যা চায়, তাই থাকা ভালো। এসব বিষয় ধরে কাউকে ছোট করার অধিকার নেই। আজ আমরা ঘোষণা দিচ্ছি যে আমাদের ক্রিকেটে যেকোনো লিঙ্গের ক্রিকেটার যেকোনো পর্যায়ে খেলতে পারবেন। এতে করে ক্রিকেট আরও বিস্তৃত হবে আশা করছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে শক্তিমত্তা, স্ট্যামিনা এবং ফিটনেস অবশ্যই একটা বড় ইস্যু। তাই আমরা লিঙ্গান্তরিত ক্রিকেটার এবং হিজরাদের এলিট ক্রিকেটে অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেবো। তবে আমাদের পলিসিতে উল্লেখিত কিছু শর্ত তাদের পূরণ করতে হবে।’

এ নতুন নিয়ম প্রণয়নের ক্ষেত্রে লিঙ্গান্তরিত ক্রিকেটার এরিকা জেমসের সহায়তা নিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। তিনি সংবাদ মাধ্যমে বলেন, ‘ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার লক্ষ্য হলো, সবার জন্য খেলাধুলা। লিঙ্গান্তরিত মানুষরাও অস্ট্রেলিয়া। এটা একজন মানুষের স্বাভাবিক অধিকার যে তারা যেকোনো খেলায় অংশ নিতে পারবে এবং তাদের যে দলে খুশি খেলবে।’