রাজশাহীতে ঈদে কেনা কাটা নিয়ে আবেগ

0
31

ঈদের দিন বাংলাদেশের মানুষ আমরা ঈদগাহে নামাজ পড়তে চাই চিল্লাইয়া কন ঠিক কিনা
ইয়াং জেনারেশন মুরুব্বী আপনারা যারা নেতৃত্বে আছেন ঈদগা সভাপতি-সেক্রেটারি আপনারাবাড়িতে মসজিদে ঈদের নামাজ পড়বেন।
ক্ষমতার লোভ টাকার লোভ একপা কবরে চলে গেছে আপনারা মনে করেন সারাজীবন পৃথিবীতে বাঁচবো ক্ষমতার পরিবর্তন হয় নতুনের সুযোগ সৃষ্টি করতে হবেপৃথিবীটা একটা ভূমি সেখানে ফসল জন্মায় ফসল আবার জন্মায়সেখানে আপনারা ক্ষমতালোভী রোগী বাঁচার জন্য আমাদের মত ইয়াংদের ঘরে বন্দি করে রাখার অধিকার আপনাদের নেই
যৌবন বয়স যার যুদ্ধে যাবার সময় তার
জয় কালে ক্ষয় নাই মরণ কালে ঔষুধ নাই
মসজিদে নামাজ পরলে করো না হবে ধর্মমন্ত্রী
হাসপাতলে চিকিৎসা নিলে করনা হবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী
পরিবহনে যাতায়াত করলে কোরনা হবে পরিবহন মন্ত্রী
কাপড় দোকান খুলনা করনা হবে টিপু মুনশি
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললে করনা হবে দিপু মন্ত্রী
ঘরে ঘরে চাল দেবো ঘরে ঘরে টাকা দিব ঘরে ঘরে চাকরি দেব প্রধানমন্ত্রী
আমাদের মত হাজার হাজার ইয়ং ছেলে মেয়ে প্রতিভা হাজার রকমের প্রতিভা থাকা সত্ত্বেও বুড়ো মুরুব্বিদের জন্য সবকিছু লকডাউন সবগুলো তো চলছেনামের লকডাউন করো না ভাইরাসে মানুষ মরছে 15-20 জন এই ভাইরাস এর চেয়ে বাংলাদেশের অন্যান্য যে কোনো অসুখে মানুষ বেশি মরছেঅযথা লকডাউন চাকরি ওয়ালা গোষ্ঠী ঘরে বসে বসে থেকে টাকা পাচ্ছে তো তাই তারা লকডাউন করে রেখেছে বাংলাদেশকে
জীবনের গতিপথ হারানো আমাদের মত হাজারো ছেলে মেয়ে শুধু ফেসবুকেই জীবন পার হয়ে যাচ্ছে কষ্ট
ধন্যবাদ সকলকে

ঘরে থাকুন গুজব না সচেতন হতে হবে

Leave a Reply