কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ কলাপাড়ায় ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের মনষাতলী গ্রামে জমি-জমা সংক্রান্তের জেরে রবিবার মহিপুর পোষ্টঅফিসের পোষ্টমাষ্টারকে মারধর করে গুরুতর আহত করা হয়েছে। ভূমিদস্যু সুলতান মৃধা ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী দেশীয় অস্ত্র দিয়ে তাকে আহত করেছে বলে জানায় আহত সৈয়দ আব্দুল মোতালেব।

হাসপাতাল ও আহতের পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, চম্পাপুর ইউনিয়নের দেবপুর গ্রামের মৃত্যু সৈয়দ আদম আলীর পুত্র সৈয়দ আব্দুল মোতালেব মহিপুর পোষ্ট অফিসে পোষ্ট মাষ্টার হিসাবে চাকরীরত আছেন। মহিপুর থানার ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের মনষাতলীতে তার নিজের ও বাবার ক্রয়কৃত প্রায় ১০ একর জমি রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সে জমি তারা ভোগদখল করে আসছে। কিন্তু গত বছর হতে উক্ত জমি উপর স্থানীয় সুলতান মৃধা নামে একজন ভূমিদুস্যুর নজরে পরে। সে ভূয়া দলিল তৈরী করে জমির মালিক দাবী করে উক্ত জমি দখল করার পায়তারা চালায়। এ জমি নিয়ে আদালতে একটি মামলা চলমান রয়েছে।

এছাড়াও কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসে দুই পক্ষকে ডাকা হয়েছে। আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর সোমবার কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসে দু-পক্ষের কাগজ-পত্র নিয়ে বসার কথা রয়েছে। অথচ ঘটনার দিন মৃত্যু ফৌজে আলী মৃধার পুত্র সুলতান মৃধা, তার পুত্র বাবুল মৃধাসহ স্থানীয় ইয়াকুব তালুকদার, রিপন মৃধা, শাজাহান মৃধা ও হানিফ মৃধাসহ ১৫/২০ জনের সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে উক্ত জমি দখল করার চেষ্টা চালায়।

সংবাদ পেয়ে সৈয়দ আব্দুল মোতালেব বাধা দিলে সন্ত্রাসীরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে তাকেসহ মোট তিনজনকে আহত করে। পরে স্থানীয়রা গুরুত্বর আহত অবস্থায় কুয়াকাটার তুলাতলী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে আহত কালাম ও ফিরোজকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয় আর আহত সৈয়দ আব্দুল মোতালেবকে কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তী করা হয়।

এবিষয়ে মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: মনিরুজ্জামান বলেন, মারামারির ঘটনা শুনেছি, লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply