ফেনীতে ফেসবুক লাইভে এসে প্রকাশ্যে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করেছেন স্বামী। গতকাল দুপুরে ফেনী পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বারাহীপুর পূর্ব ভূঁইয়াবাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ এ ঘটনায় নিহতের স্বামী ওবায়দুল হক টুটুলকে (৩২) গ্রেফতার করেছে। জানা গেছে, পারিবারিক কলহের কারণে এ ঘটনা ঘটিয়েছেন টুটুল।

নিহতের বোন রেহানা আক্তার জানান, পাঁচ বছর আগে কুমিল্লা জেলার গুণবতী এলাকার আকদিয়া গ্রামের সাহাবুদ্দিনের মেয়ে তাহমিনা আক্তারের সঙ্গে ওবায়দুল হক টুটুলের প্রেমঘটিত বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর থেকে আর্থিক অসচ্ছলতা নিয়ে তাদের পরিবারে প্রায় সময়ই ঝগড়া হয়ে আসছিল। এরই মধ্যে টুটুল তার স্ত্রীর পরিবারের কাছ থেকে বেশকিছু টাকাও নেন। কিন্তু তিনি আরও টাকা চাইলে তাহমিনার পরিবার অস্বীকৃতি জানায়। একপর্যায়ে গতকাল ফেসবুক লাইভে এসে টুটুল তাহমিনাকে দা দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করেন। পরে নিজেই মুঠোফোনে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে টুটুলকে গ্রেফতার এবং হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দা ও ফেসবুকে প্রচার চালানো মোবাইল জব্দ করে।

টুটুলের ছোট ভাই এমদাদ হোসেন মেহেদী জানান, তাহমিনা আক্তারের সঙ্গে অন্য ব্যক্তির অবৈধ সম্পর্ক থাকায় টুটুল উত্তেজিত হয়ে স্ত্রীকে হত্যা করেছেন।

ফেনী মডেল থানার পরিদর্শক তদন্ত সাজেদুল ইসলাম জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তবু বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ফেনীর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply