ফরিদপুর প্রতিনিধি:ফরিদপুরের সালথায় জমি-জমা নিয়ে দুই ভাইয়ের মারামারীতে আহত আসমা বেগম (৫২) নামে এক মহিলার হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৭মে) দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। আসমা বেগম উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়নের কাগদি গ্রামের সিরাজ খন্দকারের স্ত্রী।

নিহতের ছেলে মিরাজ খন্দকার অভিযোগ করে বলেন, গত ২৪ এপ্রিল সকাল ৮টার দিকে জায়গা-জমি নিয়ে আমার পিতা সিরাজ খন্দকারের সাথে আমার চাচা নুরু খন্দকারের কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির এক পর্যায়ে চাচা, চাচাতো ভাইসহ ১০/১২জন লোক আমার পিতার উপর হামলা করে। এসময় আমার মা আসমা বেগম আগাইয়া আসিলে প্রতিপক্ষের লোকজন আমার মায়ের উপরও হামলা চালায়। এতে আমার মা ও বাবা আহত হয়। আহতবস্থায় আমার মা ও বাবাকে নগরকান্দা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। এরমধ্যে আমার মায়ের অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় ফরিদপুর মেডিকেল হাসপাতালে রেফার করেন চিকিৎসকরা।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার চিকিৎসার অবনতি দেখা দিলে (৩মে) তাকে ঢাকা রেফার করেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার দুপুরে আমার মা মারা যান। আমরা আমাদের মায়ের হত্যার বিচার চাই। এ ঘটনায় নুরু খন্দকারের পরিবারের সবাই পলাতক থাকায় কারো বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

সালথা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ বলেন, দুই ভাইয়ের মারামারীতে ঘটনার পরে নিহত আসমা বেগমের ছেলে মিরাজ খন্দকার থানায় একটি অভিযোগ করেছিলো। পরে অভিযোগটি আমলে নিয়ে মামলা রুজু করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে জানতে পারি আসমা বেগম চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে মারা গেছে।
এহসান উদ্দিন রানা, ফরিদপুর
০৮-০৫-২০

Leave a Reply