সিরাজুল হক, সংযুক্ত আমিরাতঃকরোনাভাইরাসের কারণে সংযুক্ত আরব আমিরাতে কর্মহীন হয়ে পড়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছে বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশ সরকারের পাঠানো এসব খাদ্য সামগ্রী বাংলাদেশ মিশনের তত্বাবধানে প্রবাসীদের মাঝে বিতরণ করছে কমিউনিটির বিভিন্ন সংগঠন ও বাংলাদেশ সমিতি। এই উপহার সহায়তার মধ্য থেকে বুধবার ২০ ব্যাগ খাদ্য সামগ্রীর বণ্টন করেছে বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইউএইর নেতৃবৃন্দ। দেরা দুবাইয়ের আল নাখিল এরিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে খাবারের ব্যাগগুলো পৌঁছে দেন বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শিবলী আল সাদিক ও বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের বর্তমান সভাপতি সিরাজুল হক।
প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রসঙ্গে দুবাইস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল ইকবাল হোসেন খান জানান, প্রবাসীদের চাহিদার কথা চিন্তা করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দুই দফায় সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসীদের জন্য ১ কোটি টাকা পাঠিয়েছেন। এর মধ্যে প্রথম দফায় আবুধাবি বাংলাদেশ দূতাবাস ও দুবাইয়ের বাংলাদেশ কনস্যুলেটের জন্য ২০ লাখ করে ৪০ লাখ টাকা, দ্বিতীয় দফায় ৩০ লাখ করে ৬০ লাখ টাকা পাঠান। আমরা স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা রক্ষা করতে বাংলাদেশ কমিউনিটি, বাংলাদেশ সমিতি ও সমাজসেবী বিভিন্ন সংগঠনের মাধ্যমে ইতিমধ্যে এসব খাদ্য সামগ্রী বণ্টন শুরু করেছি।
দুবাইয়ে খাবার বণ্টনকালে বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ বলেন, কোভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাবে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে প্রবাসীরা। আমরা লক্ষ্য করেছি বাংলাদেশ কনস্যুলেট, কমিউনিটির বিত্তবান সুহৃদয়বান ব্যক্তিরা এই সংকট উত্তরণে প্রবাসীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তবে প্রকৃতপক্ষে নিঃস্ব ও অসহায় প্রবাসীদের চিহ্নিত করে এই সহায়তা প্রেরণ করা উচিত। বাংলাদেশ প্রেসক্লাব যেকোনো মহৎ উদ্যোগে অতীতেও বাংলাদেশ কনস্যুলেট ও বাংলাদেশ কমিউনিটির পাশে ছিল এবং আগামীতেও থাকবে।
এসময় প্রেসক্লাবের নেতৃত্ববৃন্দ প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টিআকর্ষণ করে বলেন, চলমান রমজান ও ঈদকে সামনে রেখে প্রবাসীরা চরম দুশ্চিন্তায় রয়েছেন। পরিবার-পরিজন কিভাবে ঈদ করবেন, কিভাবে রমজান অতিবাহিত করবেন সেই চিন্তায় দিন পার করছেন প্রবাসীরা। এমন পরিস্থিতিতে সরকারিভাবে প্রবাসী পরিবারের জন্য রমজান ও ঈদ প্রণোদনা ঘোষণা করলে তারা কিছুটা হলেও উপকৃত হবে।

Leave a Reply