নবীগঞ্জে অবৈধ কসাইখানা, দূষিত হচ্ছে পরিবেশ

0
25
নবীগঞ্জে অবৈধ কসাইখানা,দূষিত হচ্ছে পরিবেশ
Spread the love

মোঃ তানভীর হোসেন,হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ পৌরসভা কর্তৃক নিদৃষ্ট কসাইখানা থাকাসত্ত্বেও শহরের প্রধান সড়কের পাশে পশু হাসপাতালের সামনে পৌরসভার অনুমতি না নিয়ে অবৈধভাবে গড়ে তোলা হয়েছে কয়েকটি কসাইখানা। আশপাশের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে কসাইখানা করায় সেখানে পরিবেশ দূষণ হচ্ছে। এ ব্যাপারে পৌরসভায় একাধিক অভিযোগ দিলেও তারা কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রাণী সম্পদ অফিসও রয়েছে নীরব। এ সংক্রান্ত বিষয়াদি জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় ফলাও করে সংবাদ প্রকাশিত হলেও উপজেলা প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট কর্তা ব্যক্তিরা রয়েছেন নীরব। এদিকে খোলা বাজারে মাংস বিক্রেতারা হুংকার দিয়ে বলে বেড়াচ্ছেন এ সব পত্রিকায় লিখে কোন লাভ হবে না। কর্তারা তাদের ম্যানেজ রয়েছেন। সরজমিনে দেখা গেছে, নবীগঞ্জ পৌরসভার ওসমানী সড়কস্থ পশু হাসপাতালের সামনে রাস্তার পাশে পৌরসভার নির্মিত ড্রেনের উপর অপর পাশে একটি আইসক্রিম ফ্যাক্টরির সামনে রাস্তার উপর কসাইখানা রয়েছে। সড়কের পাশে অবস্থিত প্রাইমারী স্কুল ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের সামনে খোলা জায়গায় টেবিল ও মাচা তৈরি করে সেখানে প্রতিদিন গরু-ছাগলের মাংস বিক্রি করা হচ্ছে। সড়কের ধূলিকণা উড়ে গিয়ে এসব কসাইখানায় মাংসের ওপর পড়ছে। আবার কসাইখানার বর্জ্য সড়কের পাশে ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে ছড়িয়েছিটিয়ে পড়ে রয়েছে। বীরদর্পে সরকারী নীয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে প্রতি কেজি মাংস ৭/৮ শত টাকা করে বিক্রি করা হচ্ছে। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা বলেন, ‘পশুর বর্জ্য আশপাশে ফেলায় দুর্গন্ধে ঘরে থাকা যায় না। এ ঘটনায় পৌরসভায় অভিযোগ করেছি। কিন্তু পৌরসভা কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।’ জনৈ ব্যবসায়ী অভিযোগ করেন, তাঁর দোকানের সামনে জোর করে মো. আনোয়ার হোসেন ও কিতাব আলী নামের মাংস ব্যবসায়ী কসাইখানা খুলে বসেন। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে সড়কের পাশে কসাইখানা গড়ে তোলায় তাঁরা পৌরসভাসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেছেন। কিন্তু কোনো ফল মিলছে না। অভিযোগ রয়েছে এতে উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসের কর্মকর্তাদের মদদ রয়েছে। পৌরসভার স্বাস্থ্য পরিদর্শক জানান, তাঁরা ইতিমধ্যে খোলা জায়গায় কসাইখানা বন্ধে মাংস ব্যবসায়ীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply