জামায়াত ইসলামীর নবনির্বাচিত আমির ডা. শফিকুর রহমান বলেছেন, দেশের বিরাজমান সংকট আরও ঘনীভূত হয়ে দেশে অনাকাঙ্ক্ষিত মারাত্মক অবস্থা সৃষ্টি হওয়ার মতো আশঙ্কা রয়েছে।

বিরাজমান এই রাজনৈতিক সংকট থেকে উদ্ধারের একমাত্র পথ সুষ্ঠু-অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বিকালে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে দেয়া এক বিবৃতিতে জামায়াতের আমির এসব কথা বলেন।

ডা. শফিকুর রহমান বলেন, ‘বিরাজমান বর্তমান রাজনৈতিক সংকট থেকে দেশকে উদ্ধার করার একমাত্র পথ সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে অবিলম্বে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ এবং অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের ব্যবস্থা গ্রহণ করে জনগণের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দেয়া ও গ্রেফতার অভিযান এবং হামলা, মামলা ও সন্ত্রাস বন্ধ করা।’

‘অন্যথায় বিরাজমান সংকট আরও ঘনীভূত হয়ে দেশে এক অনাকাঙ্ক্ষিত মারাত্মক অবস্থা সৃষ্টি হওয়ার আশংকা রয়েছে। সেই অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির দায়-দায়িত্ব বর্তমান সরকারকেই বহন করতে হবে।’

বিবৃতিতে জামায়াতের আমির আগামী ১৪ ডিসেম্বর ‘শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস’ এবং ১৬ ডিসেম্বর ‘মহান বিজয় দিবস’ যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

বিবৃতিতে তিনি শহীদ বুদ্ধিজীবী ও শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অবদানের কথা স্মরণ করেন।

ডা. শফিকুর রহমান বলেন, জাতি এমন এক সময় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবস পালন করতে যাচ্ছে যখন দেশে এক শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। স্বাধীনতার মূল অর্জন গণতন্ত্রকে হারিয়ে দেশ আজ এক অনিশ্চিত গন্তব্যের পথে যাত্রা শুরু করেছে।’

জামায়াত আমির ‘জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলে দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বকে রক্ষার জন্য অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। একইসঙ্গে আলোচনা সভা ও দোয়ার মাহফিল আয়োজনের মাধ্যমে ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস এবং ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে পালন করার জন্য নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

Leave a Reply