কুষ্টিয়া আবরারের বাড়ি যাচ্ছেন বুয়েট ভিসি

23

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের হাতে নিহত আবরার ফাহাদের বাড়ি কুষ্টিয়ায় যাচ্ছেন উপাচার্য অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম।
ভিসি৪৩বুধবার (৯ অক্টোবর) সকালে তিনি কুষ্টিয়ার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন ভিসির একান্ত সহকারী কামরুল ইসলাম।

গতকাল মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) আবরার ফাহাদ হ*ত্যাকা*ণ্ড নিয়ে চলমান আন্দোলন পরিস্থিতিতে বিভাগীয় চেয়ারম্যান ও ডিনদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, আবরার ফাহাদের হ*ত্যাকারীদের ফাঁসিসহ আট দফা দাবি দিয়ে আন্দোলন করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীদের আট দফা দবি হলো- খু*নিদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে, ৭২ ঘণ্টার মধ্যে খুনিদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করতে হবে, আবাসিক হলগুলোতে র‌্যাগের নামে এবং ভিন্নমত দমানোর নামে নি*র্যাতন বন্ধে প্রশাসনের সক্রিয় ভূমিকা নিশ্চিত করতে হবে, ঘটনার ৩০ ঘণ্টা পরও ভিসি কেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হননি তা মঙ্গলবার বিকাল ৫টার মধ্যে ভিসিকে ক্যাম্পাসে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের কাছে এর জবাব দিতে হবে, হ*ত্যা মামলার খরচ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে বহন করতে হবে, এর আগের ঘটনাগুলোর বিচার করতে হবে, ১১ অক্টোবরের মধ্যে শেরেবাংলা হলের প্রভোস্টকে প্রত্যাহার করতে হবে এবং ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি স্থায়ীভাবে নিষিদ্ধ করতে হবে

ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস জেরে আবরার ফাহাদকে রবিবার (৬ অক্টোবর) রাতে ডেকে নিয়ে যায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। এরপর রাত ৩টার দিকে শেরেবাংলা হলের নিচতলা ও দোতলার সিঁড়ির করিডোর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। আবরারের বাড়ি কুষ্টিয়ায়। তার বাবা বরকত উল্লাহ একজন এনজিও কর্মী, মা রোকেয়া বেগম কিন্ডার গার্টেন স্কুলে শিক্ষকতা করেন। দুই ভাইয়ের মধ্যে আবরার বড়। তার ছোট ভাই ঢাকা কলেজের ছাত্র।