করোনাভাইরাসে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখলো বাংলাদেশ
Spread the love

প্রথমবার্তা২৪.কম ডেস্কঃ দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মহামারি করোনাভাইরাসে মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা বেড়েছে বলে সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনা সংক্রান্ত নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। এসময়ে দেশে আরও ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে আট হাজার ২৮৫ জনে দাঁড়িয়েছে।

এছাড়া, গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৪৬ জনের শরীরে নতুন করে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। যার ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা পাঁচ লাখ ৪১ হাজার ৩৮ জনে পৌঁছেছে। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ৩.১৫ শতাংশ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মোট পরীক্ষায় এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৪ দশমিক শূন্য ১ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মোট মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৫৩ শতাংশ।

এদিকে, ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন আরও ৬৪১ জন। এ নিয়ে দেশে মোট সুস্থ ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার লাখ ৮৭ হাজার ৮৭০ জনে। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯০ দশমিক ১৭ শতাংশ।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর ১৮ মার্চ প্রথম একজনের মৃত্যুর কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

বিশ্ব পরিস্থিতি

কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে বিশ্বব্যাপী মৃতের সংখ্যা ২৪ লাখ ছুঁইছুঁই। সেই সাথে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১০ কোটি ৮৮ লাখের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে।

সোমবার সকাল ১০টার দিকে জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয় (জেএইচইউ) থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ২৩ লাখ ৯৯ হাজার ৩৩০ জনে। এছাড়া, ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ কোটি ৮৭ লাখ ৯১ হাজার ৭৯৮ জনে।

চীনের উহানে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। গত ২০২০ সালের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে মহামারি ঘোষণা করে। এর আগে ২০ জানুয়ারি জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও।

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এ পর্যন্ত দেশটিতে ২ কোটি ৭৬ লাখ ৩৯ হাজারের অধিক করোনায় আক্রান্ত এবং ৪ লাখ ৮৫ হাজার ৩৩২ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

পৃথিবীর দ্বিতীয় জনবহুল দেশ ভারত রয়েছে করোনায় আক্রান্ত দেশের তালিকায় দ্বিতীয় এবং মৃত্যু নিয়ে চতুর্থ অবস্থানে। ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল আক্রান্ত দেশের তালিকায় তৃতীয় স্থানে থাকলেও সর্বাধিক মৃতের সংখ্যায় রয়েছে দ্বিতীয়তে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারতে মোট আক্রান্ত প্রায় ১ কোটি ৯ লাখ ৫ হাজার এবং মারা গেছেন ১ লাখ ৫৫ হাজার ৬৪২ জন। ব্রাজিলে মোট শনাক্ত রোগী ৯৮ লাখ ৩৪ হাজারের অধিক এবং মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৩৯ হাজার ২৪৫ জনের।

মেক্সিকো ১ লাখ ৭৪ হাজার ২০৭ জনের মৃত্যু নিয়ে এ ক্ষেত্রে তিন নম্বরে থাকালেও রোগীর সংখ্যা নিয়ে আছে ১৩তম অবস্থানে। সেখানে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ লাখ ৯২ হাজারের বেশি।

রোগী শনাক্তের দিক দিয়ে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি দেশ হলো- যুক্তরাজ্য (প্রায় ৪০ লাখ ৫০ হাজার), রাশিয়া (৪০ লাখ ২৬ হাজারের বেশি), ফ্রান্স (প্রায় ৩৪ লাখ ৬৮ হাজার) ও স্পেন (৩০ লাখ ৫৬ হাজারের বেশি)।

মৃতের দিক দিয়ে বিশ্বে পঞ্চম স্থানে আছে যুক্তরাজ্য (১ লাখ ১৭ হাজার ৩৮৭ জন)। তারপরে ইতালিতে ৯৩ হাজার ৫৭৭ জন, ফ্রান্সে ৮০ হাজার ৯৬১ জন ও রাশিয়ায় ৭৮ হাজার ৮২৫ জন মারা গেছেন।

Leave a Reply