জিয়ার সনদ বাতিল প্রশ্নে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী
Spread the love

প্রথমবার্তা২৪.কম ডেস্কঃ বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের রাষ্ট্রীয় খেতাব ‘বীর উত্তম’ বাতিলের বিষয়টি প্রস্তাব আকারে রয়েছে জানিয়ে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, পরবর্তী পদক্ষেপ জানতে অপেক্ষায় থাকতে হবে।

রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মন্ত্রণালয়ে নিজ কক্ষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, ‘এটা তো প্রস্তাব। এটা তো আপনারা দেখেছেন। আমরা প্রস্তাবের মালিক, আমরা তো প্রস্তাব করেছি।’

জিয়ার বীর উত্তম খেতাব বাতিলের পরবর্তী ধাপ কী হবে, জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘ওয়েট অ্যান্ড সি…।’

কেনো এমন প্রস্তাব দেয়া হলো, জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বলেছি যে জিয়াউর রহমান সাহেব বঙ্গবন্ধু হত্যার সঙ্গে জড়িত। সেই হিসেবে, খুনি হিসেবে আমরা এ কথা (খেতাব বাতিলের সুপারিশ) বলেছি।’

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) প্রস্তাবের বিপরীতে বিএনপির দাবি নাকচ করে মন্ত্রী আরো বলেন, ‘তার দলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে তিনি খুনের সঙ্গে জড়িত নয়। জবাবে আমরা বলেছি তার কী সম্পৃক্ততা আছে, তার দালিলিক প্রমাণসহ তথ্যাদি আমরা জাতির সামনে উপস্থাপন করবো।’

গত ৯ ফেব্রুয়ারি জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) সভায় জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের সুপারিশ করা হয়। বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি শরিফুল হক ডালিম, নূর চৌধুরী, রাশেদ চৌধুরী ও মোসলেহ উদ্দিনের রাষ্ট্রীয় খেতাবও বাতিলের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

Leave a Reply