শুরু হয়েছে আন্তর্জাতিক শিশু চলচ্চিত্র উৎসব। বাংলাদেশসহ ৩৯ দেশের ১৭৯ শিশুতোষ চলচ্চিত্র নিয়ে উৎসব চলবে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। রাজধানীর পাঁচটি ভেন্যুতে সিনেমাগুলো দেখার সুযোগ মিলবে। শিশু-কিশোরসহ তাদের অভিভাবকরা বিনা দর্শনীতে উপভোগ করবেন এ উৎসব। ‘ফ্রেমে ফ্রেমে আগামীর স্বপ্ন’ প্রতিপাদ্য নিয়ে ১৩তম আসরটির আয়োজক চিলড্রেন্স ফিল্ম সোসাইটি বাংলাদেশ। উৎসব স্মপর্কে চিলড্রেন্স ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, এই উৎসবটি শিশুদের জন্য বাংলাদেশের সবেচেয়ে বড় উৎসব। শুধু তাই নয়, এটি বিশ্বেরও অন্যতম বৃহৎ শিশুতোষ চলচ্চিত্র উৎসব। এ আয়োজনের মাধ্যমে দেশ-বিদেশে বিচিত্র বিষয়ের চলচ্চিত্র দেখার দুর্লভ সুযোগ পাবে শিশুরা। মূল উৎসব কেন্দ্র জাতীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন। এছাড়া জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, শিল্পকলা একাডেমির চিত্রশালা, আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ সেন্টার ও গ্যেটে ইনস্টিটিউটে চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর পাশাপাশি কর্মশালা ও আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিদিন সকাল ১১টা, দুপুর ২টা, বিকেল ৪টা ও সন্ধ্যা ৬টায় মোট ৪টি প্রদর্শনী হবে। উৎসবে শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফ‚র্ত অংশগ্রহণের জন্য ইতোমধ্যে রাজধানীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এবারে উৎসবের অন্যতম আকর্ষণীয় বিভাগ হিসেবে থাকছে বাংলাদেশী শিশুদের নির্মিত প্রতিযোগিতা বিভাগ। এ বিভাগে জমা পড়া ৪৮টি চলচ্চিত্রের মধ্যে নির্বাচিত ১৮টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে এবং ৫টি চলচ্চিত্র মনোনয়ন পাবে পুরস্কারের জন্য।

 

Leave a Reply